নিজস্ব সংবাদদাতা, নৈহাটি :- সোমবার নৈহাটির সাংগঠনিক বৈঠক শেষে বিজেপি রাজ্যসভাপতি দিলীপ ঘোষ চুঁচুড়ার এক স্কুলে মিড-ডে মিলে নুনভাত দেওয়ার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “এ সরকার নুন ভাতের সরকার। নিজের পার্টি কর্মীদের জন্য ডিম ভাত আর ছাত্রদের জন্য নুন ভাত।” এদিন গতকাল জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের কথায় নৈহাটি পৌরসভা যোগদান প্রসঙ্গে দিলীপ বলেন, ” পৌরসভা তো চলেই গেছে প্রশাসক বসেছে। সেই পৌরসভা নিয়ে কি হবে? পৌরসভা ইলেকশন হোক তখন দেখা যাবে।” নোয়াপাড়ার বিধায়ক সুনীল সিং-এর তৃণমূলে যোগদান প্রসঙ্গে বলেন, “কি হবে দিক , শোভন চট্টোপাধ্যায় চলে এলো। বিজেপি ছেড়ে কেউ যাইনি বিজেপিতে সবাই আসছে। “বসিরহাট প্রসঙ্গে দিলীপ বলেন, ওরা আমাদের বিরুদ্ধে রেপ কেস দিচ্ছে গন্ডগোল করছে, ওদের আরও বেশী মারা উচিত ছিল। ওরা বিজেপি নয় ওরা টিএমসি।”

এছাড়াও নৈহাটির গণেশ দাস গ্রেফতারের অভিযোগে দীলিপ ঘোষ বলেন, “২৮ হাজার কেস রয়েছে আমাদের কর্মীদের উপর। আমার উপরেই বিশ বাইশটা কেস আছে। আমরা কেসকে ভয় পাই না। ভয় পেলে ১৮ টা সিট জিততে পারতাম না। কেসের জবাব আমরা কোর্টে দেব।”

বিজেপি ব্যারাকপুর সাংগঠনিক জেলার সদস্যতা পর্যালোচনায় নৈহাটিতে তারামা ভবনে বৈঠক করলেন, বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এদিন এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, বীজপুর বিধায়ক শুভ্রাংশু রায় সহ উত্তর ২৪ পরগণার জেলা সভানেত্রী ফাল্গুনী পাত্র।