তৃণমূল কর্মীর মেয়েকে বিজেপির এক যুবক উত্যক্ত করার অভিযোগ, সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রবল উত্তেজনা, প্রচুর র‍্যাফ ও পুলিশ

0

সংবাদদাতা, পশ্চিম বর্ধমান :- পশ্চিম বর্ধমানের কাঁকসার আকন্দারায় কমবয়সী মেয়ের গায়ে হাত দেওয়া কে কেন্দ্র করে প্রবল উত্তেজনা ঘটনা স্থলে প্রচুর র‍্যাফ ও পুলিশ।

কাঁকসার আকন্দারা গ্রামে চব্বিশ প্রহর হরিনাম চলাকালীন এক তৃণমূল কর্মীর মেয়েকে বিজেপির কোনো এক ছেলে উত্যক্ত করে ও গায়ে হাত দেয়। সেই ঘটনায় মলানদীঘি ফাঁড়িতে এফ এই আর করে ওই মেয়ের বাড়ির লোক।পরে পুলিশ এসে ওই অভিযুক্তকারীদের গ্রেপ্তার করে। রবিবারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে সোমবার সন্ধ্যায় শুরু হয় প্রচন্ড উত্তেজনা।মলানদীঘির পঞ্চায়েত প্রধান পীযুষ মুখার্জী জানান আমি অফিস থেকে বাড়ি ফেরার পর আমাদের বাড়ির বিস্তীর্ন অংশ ভেঙে দেয়,আমার মাকে মাটিতে ফেলে দেয়,কাকাকে ইট বাঁশ, লাঠি দিয়ে মারে,এখন সে হাসপাতালে ভর্তি,গাড়ি ভেঙে দেয়।আরো তৃনমুলের কর্মীদের উপর চড়াও হয় এবং বাড়ি ভাঙচুর করে ,পার্টি অফিসের বিভিন্ন জিনিস পত্র ভেঙে দেয় বিজেপি দুষ্কৃতীরা।এলাকার তৃণমূল নেতা কেবু চ্যাটার্জী জানান, কারা করেছে সেটা এখন বোঝা যাচ্ছে না।

কেউ কেউ জানান পুরোপুরি তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ,আবার কেউ কেউ বলছেন পার্টির সঙ্গে কোনো সম্পর্ক নেই এই ঘটনার।এলাকার মানুষ জানান কাঙলা মিদ্দা নামে একজন মাফিয়া মেয়েদের টিটকারি দেয় এবং যেকোনো সময় আমাদের উপর চড়াও হয়। একাধিক বার কাঙলা নামে ওই ব্যক্তি এই ধরণের ঘটনা ঘটায়, পুলিশ নিয়ে যায় আবার পরদিন ছেড়ে দেয়।ওই অভিযুক্তকারীর ভাই রবীন মিদ্দা জানাই আমরা সিপিআইএম কার্যালয়ে বসে ছিলাম হটাৎ দাদা এসে আমাদের উপর চড়াও হয় এবং ইট দিয়ে মারে।একজন মহিলা জানান কাঙলা, মুক্তা চন্দন, বাদল, পলু, বুড়ো ও একাধিক জনেরা এই ঘটনার সাথে যুক্ত।পুলিশ থাকাকালীন আমাদের ছেলেদের মারধর করে।

এই ঘটনার ফলে বেশ কয়েকজন হাসপাতালে ভর্তি।এলাকায় বিশাল পুলিশবাহিনী।অভিযুক্তকারীর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন এলাকার মানুষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

thirteen − three =