বাইজিদ মন্ডল, ডায়মন্ড হারবারঃ- দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলায় প্রতিদিনই বিজেপি, কংগ্রেস, সিপিএম ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান পর্ব চলছে, ডায়মন্ড হারবার লোকসভা কেন্দ্রে সবথেকে বেশি ডায়মন্ড হারবার বিধানসভা থেকে হাজার হাজার মানুষ প্রতিদিন তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করছেন দিন কয়েক আগে ব্লক সভাপতি গৌতম অধিকারীর নেতৃত্বে ডায়মন্ড হারবার পুরসভায় বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে মোট ১০০০ জন বিভিন্ন দল থেকে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেন। সেই সময় গৌতম অধিকারী স্পষ্ট জানিয়ে দেন আগামী কয়েক দিনের মধ্যে ডা:হা: বিধানসভা এলাকা বিরোধী-শূন্য হয়ে যাবে।

আজ ফের ডা:হা: ১ নং ব্লকের দেয়ারোক অঞ্চলে সিপিএম ও বিজেপি ছেড়ে প্রায় ৩০০টি পরিবার দেয়ারোক অঞ্চলে তৃণমূল কার্যালয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়ন যজ্ঞে শামিল হওয়ার জন্য ডা:হা: ১নং ব্লক সভাপতি ও পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ গৌতম অধিকারীর হাত ধরে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেন এবং তাদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডা:হা: ১নং ব্লক সভাপতি গৌতম অধিকারী, দেয়ারোক অঞ্চলের যুব সভাপতি সুবিদ আলী লস্কর,প্রধান রোউপ আলী গাজী, যুব নেতা হাবিব আলী সহ অঞ্চলের সকল তৃণমূল কংগ্রেসের নেতৃত্ব বৃন্দ।

গৌতম অধিকারী বলেন, তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিতে আসা পরিবারগুলি গত বিধানসভা ভোটের আগে বিভিন্ন দল থেকে বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন। কিন্তু আজ তারা তাদের ভুল বুঝতে পেরে মা মাটি মানুষের সরকার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে তৃণমূলের হয়ে কাজ করার অঙ্গিকার বদ্ধ হলেন। আগামী দিনে তারা আর কখনো অন্য কোন দলে যাবেন না বলেও জানান।

ভোটের আগে বিজেপি তাদেরকে মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে দলে যোগদান করেছিল আজ তারা তাদের ভুল বুঝতে পেরে পুনরায় তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করলেন। তারা জানান, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গরীব মানুষের জন্য ভাবেন। তাদের কথা চিন্তা করেন এবং তাদের পাশে থাকার কথা তিনি সর্বদা বলে আসছেন। তাই আমরা সবসময়ই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সৈনিক হয়ে কাজ করার অঙ্গীকার করেছি।