সংবাদদাতা, বসিরহাটঃ- ঘরের ঠিকানা পেয়েও মানসিক ভারসাম্যহীন মহিলার বাড়ি ফেরা নিয়ে সংশয়। জানা যায় দীর্ঘদিন ধরেই বাড়ি থেকে নিখোঁজ হবার পর মঙ্গলবার বিকালে ভারসাম্যহীন মহিলাকে হিঙ্গলগঞ্জ বাজার চত্বরে ঘোরাফেরা করতে দেখেন ব্যবসায়ী সমিতির বেশ কয়েকজন লোকজন। এরপর মহিলাকে নিয়ে বাজার কমিটি সম্পাদক সুশান্ত ঘোষের কাছে নিয়ে যান। তিনি কথা বলে জানতে পারেন রানাঘাটের বহিরা গাছেতে তার বাড়ি। এই তথ্য পেয়ে সুশান্তবাবু যোগাযোগ করেন হ্যাম রেডিওর রাজ্য সম্পাদক অম্বরিশ নাগ বিশ্বাসের সঙ্গে। এরপর অম্বরিশ বাবু পুলিসের সাহায্যে লালমতি ভাইয়ের ছেলে সাথে যোগাযোগ করা হয়। তিনি মধ্যপ্রদেশে কর্মরত এই মুহূর্তে।

ভাইয়ের ছেলে অভিজিৎ জানিয়েছে, লালমনির বাড়ি রানাঘাটের ২নং ব্লকের ধানতলা থানার বহিরগাছি প্রতাপগড় এলাকায়। স্বামীর সঙ্গে সম্পর্ক নেই দীর্ঘদিনের। ওই ভারসাম্যহীন মহিলার দুই ছেলে আছে। একটি ছেলের মানসিক সমস্যা রয়েছে সে একটি মিষ্টির দোকানে কাজ করে। অন্য একটি ছেলে সে দীর্ঘদিন ধরে অন্য রাজ্যে কাজ করে, তার রানাঘাটের বাড়ির সাথে কোন যোগাযোগ নেই।

হ্যাম রেডিও রাজ্য সম্পাদক অম্বরিশ নাগ বিশ্বাস জানান, লালমতি কে বাড়ি নিয়ে যাওয়ার মতো কোন আপনজনকে পাওয়া যাচ্ছে না। তবে স্থানীয়দের পক্ষ থেকে লাল মতির কাগজপত্র দেখিয়ে হিঙ্গলগঞ্জ থেকে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করছে বলে জানা যায়।

এই বিষয়ে হিঙ্গলগঞ্জ বাজার কমিটির সম্পাদক সুশান্ত ঘোষ জানান, যতদিন না পর্যন্ত বাড়ির লোক এসে লালমতি কে নিয়ে যাচ্ছে। ততদিন আমরা তার খাওয়া থাকার ব্যবস্থা করেছি বাজার কমিটির পক্ষ থেকে।