“ছোড়দা” কে হারালো কংগ্রেস , প্রয়াত প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র

0

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ- বুধবার গভীর রাতে ৭৯ বছর বয়সে প্রয়াত হলেন বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা তথা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র। পোষাকি নাম সোমেন্দ্রনাথ মিত্র। দক্ষিণ কলকাতার বেলভিউ হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বুধবার রাত ১টা ৫০ মিনিট নাগাদ হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর। এদিন তাঁর মৃত্যুর খবর পাওয়ার পরই হাসপাতালে যান কংগ্রেসের সদস্যরা। হাসপাতালেই ছিলেন তাঁর স্ত্রী শিখা মিত্র। খবর পেয়ে গিয়েছিলেন বিজেপি নেতা রাকেশ সিংও।

জানা গিয়েছে, জ্বর এবং শ্বাসকষ্ট সমস্যা জনিত কারণে সোমেনবাবু কে গত ২১ জুলাই বেলভিউ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রক্তে ক্রিয়েটিনিনের মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় আইসিইউতে স্থানান্তর করতে হয় প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতিকে। শনিবার জানা যায় যে, কাজ করছে না তাঁর কিডনি। হৃদস্পন্দনের মাত্রাও কমে গিয়েছে। এছাড়াও বয়সের কারনে একাধিক সমস্যা ছিল তাঁর। তাঁর মৃত্যুতে প্রদেশ কংগ্রেস-সহ বাংলার রাজনৈতিক মহলে শোকের ছায়া । ‘ছোড়দা’ নামে কংগ্রেস রাজনীতিতে বেশি পরিচিত ছিলেন সোমেনবাবু।

১৯৪১ সালে জন্ম সোমেন্দ্রনাথ মিত্র -এর । শিয়ালদহ বিধানসভা কেন্দ্র থেকে ১৯৭২ – ২০০৬ সাল পর্যন্ত জিতে ছিলেন কংগ্রেস নেতা সোমেন মিত্র। তিনি ১৯৯২ – ৯৮ সাল পর্যন্ত প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পদে ছিলেন । তারপর ২০০৮ সালে কংগ্রেস থেকে বেরিয়ে নতুন দল গঠন করেন। যার নাম প্রগতিশীল ইন্দিরা কংগ্রেস। লোকসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল কংগ্রেসের সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জীর ডাকে সারা দিয়ে ২০০৯ তে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেন। সেই বছরই লোকসভার টিকিট পেয়ে ডায়মন্ড হারবার কেন্দ্র থেকে জিতে ছিলেন তিনি। কিন্তু সেই সংসারও সুখের হয়নি। তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে সম্পর্ক চুকিয়ে ফিরে গিয়েছেন মূল কংগ্রেসে। 

২০১৪ সালে তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে আবার কংগ্রেসে ফিরে আসেন। ফের ২০১৮ তে দ্বিতীয় বারের জন্য প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি নির্বাচিত করা হয় সোমেন মিত্র কে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

16 − one =