সনাতন গরাই, দুর্গাপুর :-  দিনে গরম রাতে ঠান্ডা কি সুন্দর আবহাওয়া, হা চৈত্রমাস হলে কি হবে সে তো বসন্তকাল।সকাল থেকে ঝলমলে রোদ, প্রচন্ড গরম,আর বিকাল হতেই শুরু কালবৈশাখী,তারপর বজ্রবিদ্যুৎ সহ প্রচন্ড বৃষ্টি।সারাদিনের ভ্যাপসা গরম থেকে কিন্তূ মুক্তি দেয় এই কালবৈশাখী সহ বৃষ্টি।তবে প্রবল সম্যসাতেও পড়তে হয় পথচলতি মানুষদের।বজ্রপাতের ফলে মানুষের জীবনহানি থেকে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস সবই পুড়িয়ে দিতে পারে এই বিদ্যুৎ।কালবৈশাখীও কিছু কম যায় না সেও ল্যাম্পপোস্ট,ইলেক্ট্রিক খুঁটি থেকে যাবতীয় জিনিস সব ই নিমিষের মধ্যে শেষ করে দিতে পারে।

প্রতিদিনই কালবৈশাখীর রোসে পড়ে সকলকেই সম্যসাই পড়তে হতে।আজও সম্মসাই পড়লো দুর্গাপুরবাসী একদিকে রাজনৈতিক প্রচারের ঝড় অপরদিকে প্রাকৃতিক ঝড়,কি দারুন না।