অলোক আচার্য, নববারাকপুরঃ- শুক্রবার সন্ধ্যায় চিকিৎসক দিবসে অভিনব ভাবনায় সমাজের স্বীকৃতি স্বরূপ নববারাকপুরে প্রথম সারির করোনা যোদ্ধা চিকিৎসক দের দুয়ারে গিয়ে সম্মানিত করল বহুমুখী সামাজিক সংগঠন ত্রিধারার সদস্যরা। দুটি টোটো করে মহিলা সদস্যরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চিকিৎসক দের নিজ বাড়ি অথবা চেম্বারে গিয়ে একটি গোলাপ ফুল এবং মিষ্টির প্যাকেট তুলে দিয়ে সম্মানিত করেন এদিন।

সংস্থার কর্ণধার সমাজসেবী গৌতম মজুমদার বলেন, সংগঠনের বয়স চল্লিশ বছর। বিগত কুড়ি বছর ধরে ১ জুলাই চিকিৎসক দিবসে চিকিৎসকদের স্বীকৃতি স্বরূপ শ্রদ্ধা সম্মান জানিয়ে আমরা সদস্যরা গর্বিত হলাম। আনন্দিত হলাম। চিকিৎসক রা ভগবান তুল্য। মানুষের জন্য যা করেন তা তুলনাবিহীন। ডাক্তার ছাড়া সমাজ চলতে পারে না। মানুষ চলতে পারে না ডাক্তার ছাড়া। তাদের শ্রদ্ধা সম্মান জানান একটা নৈতিক দায়িত্ব কর্তব্য। সমাজে মানুষদের সুস্থ রাখতে চিকিৎসক দের বড় অবদান রয়েছে। দিনরাত পরিষেবা দিয়ে সুস্বাস্থ্য করছেন।

সংস্থার দাতব্য চিকিৎসা কেন্দ্রে দীর্ঘ পঁচিশ বছর বিনামূল্যে স্বাস্থ্য পরিষেবা দিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে বহু মানুষ উপকৃত চিকিৎসা পরিষেবায়।সেই ভাবনা থেকেই চিকিৎসক দিবসে অভিনব ব্যতিক্রমী ভাবে ত্রিধারার মহিলা সদস্যরা দিনটি পালন করে। কোভিড লড়াইয়ে মহামারীর দিনগুলিতে চিকিৎসকরাই হয়ে উঠেছিলেন মানুষের ভরসা।

এদিন সম্মানিত করা হয় কোভিড বীর যোদ্ধা ডাঃ পবিত্র মিত্র, ডাঃ নিতাই রায়, ডাঃ পংকজ কুমার অধিকারী, ডাঃ তীর্থঙ্কর সরকার প্রমুখ। চিকিৎসক রা খুশি এবং ভীষণ আনন্দিত আপ্লুত ত্রিধারার এই মানবিক উদ্যোগে।