কবিতা :- চাঁদনী রাতের তারা

।। চঞ্চল মিস্তিরী।।

আকাশে মেঘের মউজ

উঠেছেগগনের নিল গাঙ্গে
হাবুডুবু খায় তারা শুধু
জোছনা সোনার রঙেচাঁদের শম্পানে চড়ি
চলিছে আকাশে প্রিয়া
আকাশ দরিয়া উতলা হলো
পুতলায় বুকে নিয়া।
তারার ফুল তোরা হাতে
আকাশ নিশীথ রাতে
গোপনে আসিয়া তারার পলকে
শুইলো প্রিয়ার সাথে
উল্কা জ্বালার সন্ধানী আলো
লইয়া আকাশ দ্বারী
কাল পুরুষ সে জাগি
বিনিদ্র করিতেছে পায়চারি।
শিশিরের রুপে ঘর্মবিন্দু
ঝড়ে ঝড়ে পরে সখি
চাদের আলোয় কলঙ্ক ফুল
আনমনে যায় আকি।

ঝিকি মিকি করে মাঝে মাঝে
বুঝি বধুর নিশ্বাস লাগি
দিক চক্রের ছায়া ঘর ঐ
সবুজ তরুর সারী।
তারার পলকে নিয়ে গেছে চুপে
কুহেলি মশারি টানী
নীহার নেটের কুয়াশা মশারি
ওকি বর্ডার তারি।
শোকের নিশির শিশির ঝরে
ফলবে ফসল ঘরে ঘরে
আবার শীতের রিক্ত শাখায়
লাগবে ফুলের রাগ এসে
যে মা সাজে ঘুম পাড়ালো
চুমু দিয়ে ঘুম ভাঙ্গবে সে।
হয়তো এবার মিলন রাসে
বংশীধারী আসবে পাশে।
তোমরা বেদনার সাগরের জোয়ার
জাগিলো যাদের টানে
তারা কোথায় আজ
সাগর শুকালে
চাঁদ মরে কোন খানে।
মৃত্যুর পানে চলিতে আছিলে
জীবনের পথ দিয়া
জিবনের পানে চলছি একা
আজ মৃত্যুর এ পারাইয়া।।