অলোক আচার্য, নিউ বারাকপুরঃ- ঘূর্ণাবর্তে জেরে সোমবার সকাল থেকে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি। আর সেই বৃষ্টিতে কার্যত নাজেহাল অবস্থা নব বারাকপুরেও। সকাল থেকে শহরের আকাশ ছিল মেঘাচ্ছন্ন। ভারী বৃষ্টিতে সারাদিন মেঘলা আকাশ। হালকা থেকে মাঝারি আবার ভারী বৃষ্টিতে জলমগ্ন নব বারাকপুরের বিভিন্ন ওয়ার্ড।সোমবার সকালে থেকে ভারী বৃষ্টিতে জলমগ্ন নববারাকপুর পুরসভার পূর্ব ও পশ্চিম পাড়ের বিভিন্ন ওয়ার্ড। রাস্তায় বহু জায়গায় হাটুর উপর জল জমে। আবার কোথাও বা বাড়ি ভিতরে বারান্দায় জল ঢুকে থৈ থৈ করে।

নব বারাকপুর পুরসভার ৬, ৭, ৮, ৯, ১০, ১১, ১২, ১৩, ১৮, ১৯ এবং ২০নং ওয়ার্ডের বিস্তীর্ণ এলাকায় অলি গলিতে জলমগ্ন অবস্থা। পুরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের নেতাজী সুভাষ রোড, জনতা রোড, দেশবন্ধু ও মাইকেল মধুসূদন দত্ত রোড বিল অঞ্চলে ১২ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ মাসুন্দা সতীনসেন নগর ১৩ নং ওয়ার্ডের পূর্ব কোদালিয়া স্টেশন রোড ৭নং ওয়ার্ডের বিলকান্দা মৌমেলা ও রিতা বিনা অ্যাপার্টমেন্ট কলেজ পাড়ায় পশ্চিম মাসুন্দা বুড়ির বাড়ি নেতাজী সংঘ মাঠ জলমগ্ন । ঘরের ভিতরে জল ঢুকে বিপর্যস্ত অসহায় ৮নং ওয়ার্ডের নেতাজী সুভাষ রোডে আচার্য পাড়ায় ।রাস্তায় বেরিয়ে নাকাল হতে হয় নিত্যযাত্রীদের ও সাধারণ মানুষের। বিভিন্ন ওয়ার্ডের কোঅর্ডিনেটরা জলমগ্ন অঞ্চল গুলি পরিদর্শন করেন এবং অসহায় পরিবার গুলির হাতে ত্রিপলও তুলে দেন।

পুরসভার মুখ্য প্রশাসক প্রবীর সাহা স্বয়ং বিটি কলেজ লকগেট পরিদর্শন করে জানান, নিম্নচাপে মাঝারি ও ভারী বৃষ্টিতে রাস্তাঘাট জলমগ্ন থাকলে ও এক ঘন্টা বাদে জল নেমে যায়। নববারাকপুর জল নিকাশি ড্রেনেজ সিস্টেমের আমূল পরিবর্তন করে পুর এলাকার উন্নতিসাধনে পরিকল্পনা রয়েছে।

সকাল থেকে ভারী বৃষ্টিতে সাধারণ মানুষ বাজারে যেতে পারে নি। তার ফলে সবজি ও মাছ বাজার কার্যত ফাকা। বিক্রি বাট্টা নেই বলেন দোকান দাররা এদিন। নব বারাকপুর থানার ভিতরে ও জল ঢুকে থৈ থৈ করে প্রাঙ্গণে ।