সংবাদদাতা, কলকাতা :- গায়িকাকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠল মুরারিপুকুর এলাকার এক তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে। অভিযোগ গণেশ চতুর্থী উপলক্ষে পরশু দিন রাতে মিলন সংঘের এক অনুষ্ঠান ফাংশন চলাকালীন মঞ্চে গান গাওয়ার পর গ্রীন রুমে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা সুরজিৎ সাহা ওরফে ভানু। সুরজিৎ সাহা স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলর শান্তি রঞ্জন কুন্ডুর ঘনিষ্ঠ বলে জানা গেছে। ঘটনার পর ছুটে মানিকতলা থানায় পৌঁছন ওই গায়িকা। থানায় দায়ের করেছেন অভিযোগ। ঘটনার দুই দিন কেটে গেলেও ফেরার অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা। ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়েছে শিল্পীদের সংগঠন বেঙ্গল স্টেজ পারফরমার্স গিল্ড।

ওই গায়িকার অভিযোগ, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে অনুষ্ঠান শেষ হবার পরে গ্রিনরুমে হঠাৎই তার পাশে এসে মদ্যপ অবস্থায় বসে পড়েন অনুষ্ঠানের মূল আয়োজক এবং স্থানীয় তৃণমূল নেতা সুরজিৎ সাহা ওরফে ভানু। এরপর তিনি তাকে কু-প্রস্তাব দিতে শুরু করেন। তিনি বলেন তার বাবার কিডনির সমস্যা রয়েছে তিনি খবর পেয়েছেন। তার বাবার কিডনির চিকিৎসা বাবদ তিনি ১০ লক্ষ টাকা দিতে রাজি। কিন্তু তার বিনিময়ে তাকে কুপ্রস্তাব দেন ভানু বাবু। গায়িকা অস্বীকার করলে তার সঙ্গে জোর খাটানো শুরু হয়। দরজা বন্ধ করে দীর্ঘ সময় তার ওপর নিপীড়ন চালান তিনি। এরপর কোনক্রমে সেখান থেকে বেরিয়ে এসে সোজা থানায় যান ওই গায়িকা। থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

পুলিশ বেশ কয়েকবার চেষ্টা করেও ভানু সন্ধান খুঁজে পায়নি বলে জানা গিয়েছে। এই ঘটনার পর থেকেই আতঙ্কের হয়েছেন ওই গায়িকা। তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছেন ভানু এমনটাই অভিযোগ গায়িকার। আরো অভিযোগ ঘটনার সময় আয়োজকরা কেউ তার পাশে দাঁড়ায়নি। এমনকি স্থানীয়দের কাছে সাহায্য চেয়েও তিনি পাননি। এই ঘটনার পর থেকেই আতঙ্কের হয়েছেন ওই গায়িকা। যে ক্লাবের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন ওই গায়িকা সেই অনুষ্ঠানের পোস্টারে নাম রয়েছে স্থানীয় কাউন্সিলর শান্তি রঞ্জন কুন্ডু ও রাজ্যের মন্ত্রী সাধন পান্ডের। যদিও তাদের প্রতিক্রিয়া মেলেনি।