সুমন পাত্র, ঝাড়গ্রামঃ- স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বদলি রুখতে স্কুল চত্ত্বরে বিক্ষোভ দেখালেন স্কুলের ছাত্রছাত্রী এবং অভিভাবকরা। গতকাল এমন ঘটনা ঘটেছে গোপীবল্লভপুর ১ নম্বর ব্লকের আশুই পল্লীমঙ্গল বিদ্যাপিঠের।

জানা গেছে, ওই স্কুলের প্রধান তরুণ কুমার চক্রবর্তী দীর্ঘ কয়েক বছর স্কুলের প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব সামলানোর পর নিজের বাড়ি পশ্চিম মেদিনীপুরের কোন একটি স্কুলে বদলি হচ্ছেন।আর স্কুলের প্রধান শিক্ষকের ওই বদলি মেনে নিতে পারছেন না আশুই স্কুলের ছাত্রছাত্রী থেকে অভিভাবকরা। কারণ কয়েক বছর প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব সামলানোর সময় তরুন বাবু স্কুলের যেমন প্রভুত উন্নতি করেছেন তেমন উন্নতি হয়েছে ছাত্রছাত্রীদের পঠনপাঠনের। তাই স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বদলী আটকাতে এদিন ছাত্র এবং অভিভাবকরা বিক্ষোভ দেখান বলে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত ২০১৫ সালে তিনি যখন এই স্কুলের প্রথম প্রধান শিক্ষক হয়ে আসেন সেই সময় স্কুলে অবস্থা ভগ্নপ্রায় ছিল। তিনি আসার পরে স্কুলে তোরি হয়েছে নতুন বিল্ডিং, ছাত্র নিবাস, ছাত্রী নিবাস, স্পোরস কমপ্লেক্স,শুধু তাই নয় পঠন পাঠনের ও অনেক উন্নতি হয়েছে। এর জন্য তিনি ২০১৯ সালে রাজ্যের মধ্যে ঝাড়গ্রাম জেলা থেকে সেরা শিক্ষকের অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন। তাই এই শিক্ষক চলে গেলে স্কুলের উন্নয়ন আটকে যাবে বলে দাবি ছাত্র ছাত্রীদের ও অভিভাবকদের।

তাই তাদের দাবি আশুই পল্লীমঙ্গল বিদ্যাপীঠকে যে শিক্ষক নিজের থাতে সাজিয়েছেন সেই শিক্ষক যেন অবসর কাল পর্যন্ত এই স্কুলে থাকেন।প্রধান শিক্ষক তরুণ কুমার চক্রবর্তীর দাবি এই স্কুল থেকে তাঁর বাড়ির দুরত্ব অনেকটা পারিবারিক সমস্যার জন তিনি বাড়ির পাশাপাশি অন্য স্কুলে বদলির জন্য আবেদন করেছিলেন তাই এই বদলি। তিনি বাড়ির লোকজনের সাথে কথা বলেন তার এই সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করে দেখবেন বলে জানান তিনি ।