নিজস্ব সংবাদদাতা, বসিরহাট :- গৃহবধূকে শ্বাসরোধ খুন করে দেহ লোপাটের অভিযোগে শ্বশুর-শাশুড়ি গ্রেফতার, স্বামী পলাতক। মৃতা নাম মৌসুমী ঘোষ(২১)। এমনই ঘটনা ঘটেছে বসিরহাট থানা পাতিলা চন্দ্রপুরের। জানা গিয়েছে, গতকাল রাত ন’টা নাগাদ মৌসুমীর দেহ গ্রামবাসীরা ঘরের তালা গ্রিল ভেঙে উদ্ধার করে দোতালা বাড়ির ঘর থেকে। মৃতা বধূর বাবা দীপঙ্কর গাইন অভিযোগ, তার মেয়ের গর্ভে সন্তান আসার পর থেকে অশান্তি চরমে ওঠে। একাধিকবার গর্ভবতী অবস্থায় মৌসুমীকে মারধর করে তার স্বামী অর্ণব ঘোষ শাশুড়ি পান্নু ঘোষ শশুর বাদল ঘোষ । বসিরহাট থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে মৃতার পরিবার। গত তিন বছর আগে বসিরহাটের নলকরা গ্রামের বাসিন্দা মৌসুমীর সঙ্গে বিয়ে হয় অর্ণবের ।সুশ্রী হয় পরিবার বিনা পণে তাকে বিয়ে করে অর্ণব পোল্ট্রি ব্যবসায়ী হাওয়া অন্যদিকে ধনী পরিবার। তার সঙ্গে বিবাহ দেন মৌসুমীর বাবা এমনটাই অভিযোগ ।কিন্তু বিয়ের পর থেকে অর্ণব এর পরিবার পণের দাবিতে একাধিকবার মারধর করে বলে অভিযোগ। এমনকি গতকাল মঙ্গলবার পুত্রসন্তানের দুধ খাওয়ানো নিয়ে স্ত্রী ও স্বামীর মধ্যে বচসা গন্ডগোল হয় ।

সেই অশান্তি চরমে ওঠে সেই সুযোগে পরিকল্পনা করে অর্ণব তার মা-বাবাকে সঙ্গে নিয়ে তাকে মারধোর করে শ্বাসরোধ করে খুন করে ।এমনকি দেহ লোপাট করার চেষ্টা করে । অভিযোগ বধুর পরিবারের। গতকালকে রাত্রিবেলা মৃতদেহ উদ্ধার ঘরে পুলিশ গ্রামবাসী শ্বশুরবাড়ি বাড়ি ভাঙচুর তার মোটর বাইকে আগুন লাগিয়ে দেয় ।মারধোর করে শ্বশুর শাশুড়িকে বসিরহাট থানা পুলিশের হাতে তুলে দেয়। শ্বশুর-শাশুড়ি গ্রেপ্তার করে পুলিশ স্বামী পলাতক। তার খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে ।ধৃত দুজনকে আজ বুধবার বসিরহাট মহকুমা আদালতে তোলা হবে ।