নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইঘাটা :- আগুন লেগে ভস্মীভূত গোটা বাড়ি। শুধু পরে রয়েছে কয়েকটি টিন। সোমবার সন্ধ্যা ঘটনাটি ঘটেছে গাইঘাটা থানার নাগবাড়ি এলাকায়। স্থানীয়দের দেড়ঘন্টার প্রচেষ্টা আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, পূর্ণিমা বিশ্বাস নামের আশিউর্ধ এক পেরালাইড রোগীর মহিলা তার দুই মেয়ে ও তিন নাতিকে নিয়ে এই বাড়িতে থাকতেন। গত কাল সুটিয়া হাট থাকায় প্রায় পুরুষ শূন্য ছিল গ্রাম। তারই মধ্যে হটাৎ করে এক পথচারি দেখেন পূর্ণিমা দেবীর ঘরে আগুন লেগেছে। তার চিৎকার শুনে পূর্ণিমা দেবীর মেয়ে ঘর থেকে বাইরে বেরিয়ে আসে। একে একে এলাকাবাসীরা এসে আগুন নিভাতে শুরু করে। খবর দেওয়া হয় দমকল বিভাগে। দেড় ঘন্টার মত চলে অগ্নি তাণ্ডব। দমকল কর্মীরা ঘটনাস্থলে আসার আগেই স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসে। যদিও ততখনে সব শেষ। বাস ও পাঠকাটির বেড়া হওয়ায় আগুন দ্রুত ছড়িয়েছে বলে মনে করছেন দমকল কর্মীরা। স্থানীয়দের প্রচেষ্টা কোন মতে প্রানে বেঁচে যান পূর্ণিমা দেবি। তাদের আনুমান পূর্নিমা দেবির ছোট নাতি সন্ধ্যা দিতে যাওয়ার সময় তার হাতের প্রদ্বীপ থেকে কোন ভাবে পাট কাঠির বেড়ায় আগুন লেগে গিয়েছে। ঘটনার তদন্তে গাইঘাটা থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

15 − 10 =