গভীর সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়ে ৪টি ট্রলার তলিয়ে নিখোঁজ বহু মৎসজীবি

0

সানওয়ার হোসেন, কাকদ্বীপ :- এখন ভরা কোটাল। মৎস্যজীবীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দুটো পেট চালানোর তাগিদায় সমুদ্রের মাঝে গিয়ে মৎস্য সংগ্রহ করতে হয়। মাছ ধরতে গিয়ে গভীর সমুদ্রের ৪টি ট্রলার তলিয়ে নিখোঁজ প্রায় অনেক মৎসজীবি। এখনো পর্যন্ত প্রায় ৩৪ জনকে উদ্ধার করা গিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে বাংলাদেশের কাছে হাড়িভাঙ্গা চরের কাছে। ফিশারম্যান অ্যাসোসিয়েশনের তরফ থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে জুলাই থেকে সমুদ্রে মাছ ধরতে যাওয়ার নিষেধ করা হয়, কারণ এই সময়ে সমুদ্র বেগতিক থাকে।

অনেক দিন ধরে বসে ছিলেন মৎস্যজীবীরা। কয়েকটা ট্রলার কিছুদিন আগে গভীর সমুদ্রে মাছ ধরতে বের হয়। সেই সময়ে পশ্চিমে প্রবল ঝড় হওয়ার কারণে ট্রলার গুলি বাংলাদেশের দিকে চলে যায়। চারটি ট্রলারে মোট ৬৪ জন মৎস্যজিবি ছিল বলে জানা যায়। বিপদের আশঙ্কা বুঝে উপকূলের দিকে আসছিল ট্রলার গুলি। কিন্তু বাংলাদেশের হাড়িভাঙ্গা চরের কাছে ধাক্কা লেগে ট্রলার ডুবে যায়। ১ টি ট্রলার ডুবতে দেখা গেলেও বাকি ট্রলারের খোঁজ পাওয়া যায়নি এখনও। ৬৪ জনের মধ্যে ৩৪ জনকে উদ্ধার করা গেলও বাকি দেরকে এখনো উদ্ধার করা যায়নি। বাকি ট্রলার ও নিখোঁজ মৎস্যজীবীদের তল্লাশি চলছে।

টলার গুলি হল F.B দশোভূজা, F.B নয়ন-১, F.B বাবাজী,ও F.B জয়জগী। ইতিমধ্যে ভারতীয় উপকূল বাহিনী বিশেষ নজর রেখেছে। নিখোঁজ মৎস্যজীবীদের উদ্ধারের জন্য বাংলাদেশে উপকূল বাহিনীর কাছে যোগাযোগ রেখেছে। এহেন ঘটনা শোনার পর মৎস্যজীবীদের পরিবার আতঙ্কে রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

fourteen + sixteen =