পল মৈত্র, দক্ষিণ দিনাজপুরঃ- মঙ্গলবার দুপুর ১.৩০ নাগাদ দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুর স্টেডিয়ামে হেলিপ্যাডে পদার্পণ করেন ও প্রশাসনিক বৈঠক সারেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। এদিন তিনি কোচবিহার থেকে প্রশাসনিক বৈঠক সেরে গঙ্গারামপুরে আসেন। মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক বৈঠককে ঘীরে প্রশাসনিক ব্যস্ততা ও নিরপত্তা ছিল যথেষ্ট আটোসাঁটো। সারা গঙ্গারামপুর শহরকে নিরপত্তার চাদরে মুরিয়ে ফেলা হয়।

উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রীর সরকারী সহকারী সহ নেতারা ছিলেন দক্ষিণ দিনাজপুর জেলাশাসক নিখিল নির্মল, গঙ্গারামপুর মহকুমা শাসক দেবাঞ্জন রায়, পুলিশ সুপার প্রসূন ব্যানার্জী, মন্ত্রী বাচ্ছু হাঁসদা, গঙ্গারামপুর পৌরসভার চেয়ারম্যান অমলেন্দু সরকার সহ অন্যান্য নেতা নেত্রীরা। এদিন প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী সমস্ত বৈঠক সেরে মালদার উদ্দেশ্যে রওনা হন। অন্যদিকে মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক বৈঠক ছিল তা অনেকেই জানতেন না তাই শতাধিক তৃণমূল সমর্থকরা স্টেডিয়ামে প্রবেশ না করতে পেরে বাড়িমুখো হন। অনেকে আবার মমতা ব্যানার্জীকে দেখার জন্য খাঁ খাঁ রোদে দাড়িয়ে থেকে মুখ্যমন্ত্রী হেলিপ্যাডে পদার্পণ করলে তার উদ্দেশ্যে হাত নাড়ান আবালবৃদ্ধবনিতা। এদিন এই প্রশাসনিক বৈঠককে ঘিরে শহর জুড়ে ও বৈঠক স্থল স্টেডিয়ামে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে বিশাল পুলিশ বাহিনী ও সিভিক ভলেন্টিয়ার্স মোতায়েন করা হয়। এবং কোন গাড়ি বৈঠক স্থলে ঢুকতে দেওয়া হয়নি আর যার ফলে ৫১২ নং জাতীয় সড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয় সাধারন মানুষ সমস্যায় পড়েন। তবে প্রশাসন তৎপর থাকার ফলে যানজট মুক্ত পরিবেশ করা হয় খুব দ্রুত। এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীকে দেখতে ভিড় জমান প্রচুর মানুষ আর ভীড় ছিল লক্ষনীয়। দুপুর ৩ টা নাগাদ হেলিকপ্টারে চড়ে ফের প্রশাসনিক বৈঠক করতে মালদার উদ্দেশ্যে রওনা হন বলে সুত্রের খবর।