বাবু হক, হাওড়াঃ- বাংলা বাঙালি সনাতন ধর্মাবলম্বীদের কাছে আগামীকাল কার্তিক মাসের শেষ দিনে চিরাচরিত রীতি নীতি অনুসরণ করে আধ্যাত্মিক ও আধুনিকতার ছোঁয়ায় জাঁকজমকপূর্ণ ভাবে কার্তিক পূজা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন রঘুনাথ কোঁড়া। প্রবীণ অবসর প্রাপ্ত শিক্ষক রোহিনী মোহন রায় আমাদের প্রতিবেদককে বলেন বংশানুক্রমে হিন্দু সনাতন ধর্মাবলম্বীরা ঐতিহ্যগতভাবেই বাংলার বাঙালিরা ধর্মীয় আঁধারে সন্তান-সন্ততির আশায় যে যার সাধ‍্যমতো কার্তিক মাসের শেষ দিনে কার্তিক পূজা করে থাকে তবে আগে সন্তান সন্ততি কারো বিবাহের পর পাঁচ দশ বছরের মধ্যে না হলে তাদের বাড়ির বয়স্করা প্রতিবেশীর সঙ্গে কথা বলে নিজের বাড়ির পুত্র বা কন‍্যার বাড়িতে সন্তান-সন্ততির আশায় বুক বেঁধে প্রতিবেশীকে দিয়ে কার্তিক ঠাকুর কোন এক রাতে আতশবাজির মধ্য দিয়ে ঢাকঢোল পিটিয়ে নিজের বাড়িতে কার্তিক ঠাকুর কে আহ্বান জানাতেন আর এখন আধুনিকতার ছোঁয়ায় বিবাহের পর পরবর্তী সময়ে এক বা একাধিক সূত্র মারফত কার্তিক ঠাকুর কে পৌঁছে দেওয়া হয় বাংলা বাঙালির বিবাহিত জনদের বাড়িতে।

সন্তান-সন্ততির আশায় আশায় থাকা পরিবার পরিজন আত্মীয় স্বজন সহ সকল প্রকার সাথীরা এক বা একাধিক কার্তিক ঠাকুর পুজো করে থাকেন বাধ‍্য হয়ে চিরাচরিত রীতি নীতি অনুসরণ করে। তবে এই কার্তিক ঠাকুর পুজোর বেশির ভাগ খরচ করে থাকে মামা বাড়ির লোকজন। রাজ‍্যের অত‍্যতম হুগলি জেলার বাঁশবেড়িয়ার কার্তিক ঠাকুর পূজার আয়োজন লাখ লাখ বাংলা বাঙালি সনাতন ধর্মপ্রাণ মানুষের সমাগম ঘটে উৎসব মুখর পরিবেশে অন‍্যমার্তায়।

কেউ খিচুড়ি তো কেউ লুচি ও অন্যান্য খাবার আয়োজন করে থাকে। বিবাহিত মহিলা ও পুরুষদের সন্তান সন্ততির জন্য কোন সমস্যা দেখা দিলে চিকিৎসা বিজ্ঞান আধুনিক চিকিৎসার পরামর্শ দিয়েছেন ডাঃ লাহিড়ী ও রায় চৌধুরী।

পশ্চিমবঙ্গ বাই সাইকেল ট‍্যুরিষ্ট এ‍্যাসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা উপদেষ্টা ডঃ অনিন্দ্য গোপাল মিত্র বলেন, ধর্মীয় বিশ্বাস এক, চিকিৎসা পদ্ধতি ও সরকারি নির্দেশে আর এক। সমাজকর্মী সেখ রফিকুল ওয়াহেদ মহম্মদ সহিদুল হক বলেন বিবাহের আগেই জন্ম ঠিকুজি যাই বলুক না কেন কি মহিলা কি পুরুষ উভয়েরই থ‍্যালাসেমিয়া পরীক্ষা করে দেখে নেয়া দরকার। তাতে আগামী প্রজন্মের জন্য ভালো হবে বলে তিনি দাবি করেন।

এক গৃহবধূ আম্বিয়া বেগম তার করুন কাহিনী বিস্তারিত জানালেন নেগেটিভ ও পজিটিভ বিষয়ে তার তিক্ত অভিজ্ঞতার কথা, চিকিৎসকদের পরামর্শ বিবাহের আগেই পরীক্ষা করুন থ‍্যালাসেমিয়ার নিজের, পরিবারের ও আগামী প্রজন্মের কথা ভেবে। আজকে বিভিন্ন বাজারে ঘুরে ঘুরে দেখা গেছে কার্তিক ঠাকুর পুজোর আয়োজনের কেনাকাটার প্রস্তুতি চলছে জোরকদমে এরকমই দৃশ্য রাজাপুর থানার তুলসিবেড়িয়া বাজারে আমাদের প্রতিনিধির ক‍্যামেরায়।