সংবাদদাতা, কাঁচরাপাড়া :- কাঁচরাপাড়া স্টেশন রোড ৫নং ওয়ার্ডের নিউ বিবেকানন্দ মার্কেটে আগুন। ভস্মীভূত দেড়শোরও বেশি দোকান। রাত তিনটে নাগাদ আগুন লাগে। দমকলের প্রাথমিক অনুমান শট সার্কিট থেকে আগুন লাগতে পারে। কি কারণে এই আগুন লেগেছে তা খতিয়ে দেখছে দমকল ও বীজপুর থানার পুলিশ। ঘটনাস্থলে প্রথমে কাঁচরাপাড়া দমকলের ১টি ইঞ্জিন এসেও আগুন নেভাতে পারেনি। পরে কল্যাণী, ভাটপাড়া ও বারাকপুর থেকে দমকল আসে। দমকলের ৭টি ইঞ্জিনের চেষ্টায় সকাল ১০টা নাগাদ আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। দোকানদারদের অভিযোগ, দমকলের গাফিলতির কারণে আগুন নিয়ন্ত্রণ আনতে দেরি হয়েছে। ঘনবসতি এলাকায় এই মার্কেট, আগুন লাগার পরই আশেপাশের বাড়ি গুলিতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনাস্থল খতিয়ে দেখলেন বীজপুরের বিধায়ক শুভ্রাংশু রায় ও কাঁচরাপাড়া পুরসভার পুরপ্রধান সুদামা রায়। আগুন নেভাতে দেরি হওয়াতে দমকল কর্মীদের সাথে বিতর্কে জড়ালো দোকানে মালিক, কর্মীরা। হতাহতের কোন খবর নেই। ক্ষতিগ্রস্ত কয়েক কোটি টাকার জিনিস পত্র। ব্যবসায়ীদের মাথায় হাত! কি করবে, কিভাবে তাদের দোকান নতুন গড়ে তুলবে। তা নিয়ে চিন্তিত দোকানদাররা। যদিও স্থানীয় বিধায়ক ক্ষতিগ্রস্ত দোকানদারদের ভরসা দিয়েছে দেড় মাসের মধ্যে তাদের দোকান পুনরায় ফিরে পাবেন। এবং সব রকম সহযোগিতার করবেন বলে জানিয়েছেন।এদিকে আগুন লাগার অনেক পরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে এসে বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয়েছে বারাকপুরের বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিংকে। প্রসঙ্গত, যারা অস্থায়ী ভাবে স্টেশন রোড ধরে ফুটপাতে বসতেন, তাদের কথা চিন্তা করে বীজপুর বিধায়ক শুভ্রাংশু রায় ওই রেলের ফাঁকা মাঠে স্থায়ী ভাবে দোকান করা ব্যবস্থা করে দেয়। টিনের ছাউনি দিয়ে দোকান গড়ে ওঠে। ২০১২ সালে ১৫ আগস্ট এই মার্কেটের উদ্বোধন হয়। বর্তমানে মোট দোকানের সংখ্যা ২৭০টি। রয়েছে জামাকাপড়ের দোকান থেকে কসমেটিকস, ঘড়ির দোকান থেকে মোবাইলের দোকান।