সনাতন গরাই, দুর্গাপুর :- দুই জেলার যাতায়াতের মাধ্যম এই অজয় নদ। বীরভূম এবং বর্ধমানের মাঝে এই নদীতে বর্ষার সময় টেন্ডার করে নৌকা এবং বাঁশের মাচার মাধ্যমে চলে চলে পারাপার। কিছুদিন ঝুট ঝেমেলার কারণে বন্ধ ছিলো নৌকা এবং মাচা পরিষেবা যার ফলে ব্যাপক সমস্যার মুখে পড়েছিলো দুই জেলার মানুষ। ফের আবার শুরু হয় নৌকা এবং মাচা পরিষেবা। কিন্তু তাতেও ব্যাপক সম্যসা। কখনো

এক হাটু জল আবার কখনো এক কোমর জল পেরিয়ে নৌকায় চাপতে হয়।এক নৌকাতেই বাইক সাইকেলের সাথে পারাপার করে মানুষ।জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলে পারাপার।এই রাস্তার উপর পারাপার করে স্কুল পড়ুয়া থেকে ব্যবসায়ীরা।কোনো নিরাপত্তা নেই নৌকার বলে জানান মাঝি।

শুক্রবার মাচার মাধ্যমে পারাপারের সময় হঠাৎ মাচা ভেঙে বিপত্তি ঘটে এবং নদীতে পরে যায় যাতায়াতকারীরা এবং বাইক।পরে তাদের নৌকার মাধ্যমে উদ্ধার করা হয়।সাধারণ মানুষ জানান খুব কষ্ট করে পারাপার করতে হয় নদী।

শিবপুর পঞ্চয়েতের সদস্য গিরিধারী সিং জানান, নদীর ওই পাড়ে বীরভূম প্রশাসন ফেরি ঘাটের কাজ শুরু করেছিল। কিন্তু কিছু লোক এই কাজের বাধা দেয় এবং ঝেমেলার সৃষ্টি করে যার ফলে বন্ধ হয়ে যায় কাজ। ফের শুরু হয় নৌকা পরিষেবা। জানান আর একটু জল কমলেই ফেরিঘাট পরিষেবা শুরু হয়ে যাবে।