কবিতা – মাতা-পিতা

🔸চঞ্চল মিস্তিরী🔸(বাংলাদেশ)

মাতা-পিতা পরম গুরু
এ জগতে ভাই
সেই সেই বোঝে দুঃখের মম
যার মাতা পিতা নাই

দশ মাস দশ দিন ছিলাম আমি মায়ের উদারে,
বুঝলাম না তো মায়ের কষ্ট আমি জীবনে,
হলাম আমি ভক্তি শূন্য
প্রান বেদনায় মায়ের জন্য
আমি ভক্তি শূন্য অপদার্থ ভাই।
সেই সেই বোঝে দুঃখের মম
যার মাতা পিতা নাই।।

পিতা আমার জন্ম দাতা বড় দেবতা,
স্বর্গের চাইতে শ্রেষ্ঠ ভাইরে হয়যে পিতা,
ভুলেছি আজ বড় হইয়া
আসলাম ভবে কি ধন লইয়া
পিতৃধন আজ আমার ভাগ্যে নাই।
সেই সেই বোঝে দুঃখের মম
যার মাতা পিতা নাই।।

রেখে ছিল মা শয্যা পাশে কত রাত জেগে,
আঁধার কত রাত জেগে ছিল ভিজা বিছানাতে,
আমি বুলেছি আজ সে সব কথা,
পেয়েছি জীবনের সখা,
বুজেছি আমি মায়ের চরন পূজা আমার ভাগ্যে নাই,
সেই সেই বোঝে দুঃখের মম যার মাতা পিতা ভাগ্যে নাই।।

অধম বলে আমি মাতা-পিতা সবে ভাই,
মাতা পিতার চরন তলে স্বর্গ দেখতে পাই,
হলো না মোর এ কপালে মাতা পিতা চরন পূজারে,
এমন গুরু বিনে আমার বন্ধু কেহ নাই,
মাতা-পিতা পরম গুরু এ জগতে ভাই,
সেই সেই বোঝে দুঃখের মম
যার মাতা-পিতা নাই।।