অলোক আচার্য, বারাসতঃ- অর্ক দীপের সোপান। নামের মধ্যে রয়েছে আন্তরিকতা ও মাধুর্য। বারাসত দক্ষিণ পাড়া হরিনাথ সেন রোডে একটি বহুমুখী স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। সূর্যের জ্যোতির সিডির মতন এগিয়ে চলেছে সংগঠন মানব সেবা ও সাহিত্যের মাধ্যমে সমাজ সচেতনতায। শনিবার সারাদিন কথায় গানে কবিতায় সাহিত্য আলোচনায় বারাসাতের বুকে এক ভাষা দিবস ও বসন্ত উৎসব নিয়ে ভিন্ন ধর্মী অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল।

এই অনুষ্ঠানের মূল বিষয় ছিলো বাংলা ভাষা বিলুপ্ত নয় এ নিয়ে আলোচনা পাশাপাশি দুঃস্থ ছাত্র-ছাত্রীদের বই, খাতা পেন প্রদান ও বসন্ত উৎসব নিয়ে বিশেষ এক অনুষ্ঠানে। বিশেষ আকর্ষণ কবি ও নাট্যকার আরণ্যক বসুর সঙ্গে অর্ক দীপের সোপানের খোলামেলা সাহিত্য বৈঠক। আন্তর্জাতিক মানের বিশিষ্ট কবি আরন্যক বসু সহ বিশিষ্ট কবিরা স্বরচিত কবিতা পাঠ করেন। ২৫ জন ছাত্র ছাত্রীর মধ্যে বই ও শিক্ষণ সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়।কচিকাচাদের মুখে হাসি ফোঁটাতে পেরে সংগঠন আরও একধাপ সিডি তে পৌছে গেল। সকলের কপালে আবীরের ফোঁটা দিয়ে বাঙালীর বসন্ত উৎসব পালিত হয়।

উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট কবি, নাট্যকার আরণ্যক বসু, অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন কথা সাহিত্যিক দিলীপ রায়। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন, বারাসাত ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি তথা সুসাহিত্যিক ডাঃ তপন কুমার বিশ্বাস, হাইকোর্টের আইনজীবী কমলেশ চন্দ্র সাহা, কবি অনীশ ঘোষ, কবি বিমল চন্দ্র গড়াই, কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিস্টেম ম্যানেজার ডঃ সমীর দাস, আনন্দ মন্ডল, কবি অশোক মুখোপাধ্যায় ও আন্তর্জাতিক বাউল শিল্পী গণেশ চন্দ্র রায়, কবি সৌম্যদীপ রায়, অঞ্জন বিশ্বাস, মনোজ কুমার সহ বিশিষ্ট গুনীজনেরা। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন বাচিক শিল্পী দীপক সেন। সংগঠনের চেয়ারপার্সন কবি ও সমাজসেবী দীপ্তি রায় বলেন সংগঠনের মূল উদ্দেশ্য মানব সেবা, পরিবেশ সচেতনতা, সাহিত্যর মাধ্যমে সমাজ সচেতনতা। -“আজকের অনুষ্ঠান ছিলো মূলত বাংলা ভাষার প্রতি সম্মান জানানো, সমাজ সেবা ও ভালোবাসা ও সম্প্রীতির মেলবন্ধন।

শুরুতে কবি আরণ্যক বসু, অনিশ ঘোষ, দিলিপ রায় সহ বিশিষ্ট গুণীজনেরা মঙ্গলদ্বীপ প্রজ্বলন করে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করেন। কথায় গানে কবিতায় সাহিত্য আলোচনা ভাষা দিবসে শহীদদের শ্রদ্ধা ও আগাম বসন্ত উৎসবে সম্প্রীতির ব্যতিক্রমী বার্তা নজির গড়ল অর্ক দীপের সোপান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

1 × 5 =