অলোক আচার্য, নিউ বারাকপুরঃ- “আমার ইচ্ছে পূরণের ইচ্ছে ডানায়, আপনারাই জুগিয়েছিলেন ইচ্ছে।” মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সর্বদা বিশ্বাসী ইচ্ছে পূরণের মন্ত্রে, মানুষকে বাঁচানোর মন্ত্রে। সেই মন্ত্রকেই পাথেয় করে রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যের নির্দেশে নিউ বারাকপুর পুরসভার দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধতা শুক্রবার সমগ্র নববারাকপুর বাসীকে প্রায় ১০০% টিকা প্রদানে সক্ষম হ’ল।

মুখ্যমন্ত্রীর ইচ্ছা ছিল এই বছর দুর্গাপূজার প্রণাম মন্ত্র আর প্রার্থনা যেন রোগমুক্ত ভারত গড়ার জন্য থাকে। আর সেটারই শুরুটা বাংলা থেকেই হলো। রোগমুক্ত ভারত গড়ার লক্ষ্যে আমরা নিউ বারাকপুর পুরসভা নিজেদের সামিল করতে পেরে ভীষণ ভাবে আপ্লুত। শুক্রবার বিকেলে নিউ বারাকপুর পুরসভার মুখ্য প্রশাসক প্রবীর সাহা জানান সাংবাদিক সম্মেলনে।

নববারাকপুর শহরে একাশো শতাংশ প্রথম ডোজ টিকাকরণ সফল করার লক্ষ্যমাত্রা পূরণে পুরসভার কনফারেন্স কক্ষে এক সাংবাদিক সম্মেলনে আয়োজন করা হয়। প্রশাসক বলেন, বিশেষ ধন্যবাদ জানাব নিউ বারাকপুর বাসীকে, যারা আমাদের এই “Mission Fully Vaccinated town” গড়ার লক্ষ্যে তাঁদের সম্পূর্ণ সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। ধন্যবাদ জানাই সমস্ত পুর আধিকারিকদের, যাঁরা নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দিনরাত শহরের মানুষকে কোভিডের বিরুদ্ধে লড়তে সহায়তা করলেন। ধন্যবাদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে, উনি বহু প্রতিকূলতার মধ্যেও বাংলাকে টিকাকরণ থেকে বঞ্চিত না করার দীর্ঘ লড়াই করেছেন। ধন্যবাদ রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যকে সর্বদা অভিভাবকত্ব প্রদানের জন্য। ধন্যবাদ স্বাস্থ্য দপ্তর কে যারা সঠিক সময়ে সঠিক উপায়ে সর্বদা পাশে থাকার জন্য। “ভালোথাকবেন সুস্থ থাকবেন, নববারাকপুর পৌরসভা সর্বদা আপনাদের সেবায় অঙ্গীকারবদ্ধ “।

আজ সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে সবার সঙ্গে এই সাফল্য তুলে ধরা হল। দীর্ঘ দু বছর ধরে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করে শহরে একশো শতাংশ প্রথম ডোজ টিকাকরণ সম্পূর্ণ করল। উপস্থিত ছিলেন পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য, বিভিন্ন ওয়ার্ডের কোঅর্ডিনেটরা ও পুরসভার নোডাল অফিসার, স্বাস্থ্য আধিকারিক, কার্যনির্বাহী আধিকারিক, পুর হাসপাতালের মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক সহ বিশিষ্ট চিকিৎসকরা।