অলোক আচার্য, বিরাটীঃ- কোভিড সংক্রমণ মোকাবিলায় ও ইয়াসের তান্ডবে শাসক দলের সাংসদ থেকে মন্ত্রীরা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশেমতো এলাকার জুড়ে সবসময় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে পরিষেবা দিয়ে চলেছেন। মানুষের পাশে মানুষের সাথে আছেন। কখন ও কমিউনিটি কিচেন আবার কখনও বা রান্না করা পুষ্টিকর খাবার তুলে দিচ্ছেন প্রত্যন্ত অসহায় শিশু থেকে বৃদ্ধ বৃদ্ধাদের হাতে।

শনিবার সন্ধ্যায় দমদম উত্তর বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক ও রাজ্যের তিনটি গুরুত্বপূর্ণ দপ্তরের দায়িত্ব পালনে চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যের উদ্যোগে বিরাটী নিমতা পাঠানপুর মোড়ে উত্তর দমদম এলাকায় দুঃস্থ মানুষের সাহায্যর্থে রুটি ও রান্না করা সব্জি বিতরণ করেন মন্ত্রী স্বয়ং।

উপস্থিত ছিলেন সাংসদ সৌগত রায়, উত্তর দমদম শহর তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি বিধান বিশ্বাস সহ স্থানীয় কোঅর্ডিনেটর সৌমেন দত্ত, রাজর্ষি বসু সহ তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা।

এদিন চার শতাধিক অসহায় মানুষের হাতে রুটি সুজি ও রান্নার করা সব্জি তুলে দেওয়া হয়।মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য বলেন, এই করোনা অতিমারি আবহে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে পরিষেবা দেওয়া প্রধান আশু কর্তব্য। শুধু কোভিড নয় বিগত দশ বছর আগে ও উত্তর দমদম পুর বাসীর পাশে দাঁড়িয়ে কাজ করেছি পাশে থেকেছি। এবার দমদম উত্তর বিধানসভা কেন্দ্রের নির্বাচিত জন প্রতিনিধি হিসেবে আবার ও পাশে দাঁড়িয়ে পরিষেবা দেব। উত্তর দমদম পুরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডের কোঅর্ডিনেটরা তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী সমর্থকরা মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে কাজ করে চলেছে।

উত্তর দমদম পুরসভার উদ্যোগে পুরসভা চালু হয়েছে ১০০ বেডের সেফ হোম। চালু রয়েছে মা ক্যান্টিন। বিভিন্ন ওয়ার্ডের অক্সিজেন পরিষেবা কেন্দ্রে। বহু মানুষ বিনা মূল্যে পরিষেবা পাচ্ছেন ।পুরসভার উদ্যোগে কে সাধুবাদ জানান রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ও।