নিজস্ব সংবাদদাতা, ব্যারাকপুর :- ইষ্টবেঙ্গল পিয়ারলেসের ম্যাচের ঘটনায় পুলিশের ব্যবহারে সর্থকরা মনে করছেন আগামীদিনে গ্যালারিতে লোক হবে না। গত ৯ তারিখ ইষ্টবেঙ্গল পিয়ারলেসের ম্যাচে পুলিশের লাঠির ঘায়ে মহিলা সহ আহত হয় বেশ কয়েকজন। তাদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ১ জন সমথর্ক কাঁকুরগাছি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সেই আহতদের মধ্যে আহত শ্যামনগরের সৌমজিৎ বসাক। কল্যানী বিশ্ববিদ্যালয়ের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। ৩ বন্ধু ও ১ বান্ধবী মিলে খেলা দেখতে যায়। গোলবারের পিছনে ইষ্ট বেঙ্গল গ্যালারিতে বসে খেলা দেখছিলেন। খেলায় ইষ্টবেঙ্গল পরাজিত হয়। খেলা শেষে খেলোয়াড়দের সম্বর্ধনা অনুষ্ঠান চলছিল। সমর্থকরা কেউ বেড়িয়ে যাচ্ছিলেন কেউ ভিড় কমলে বেরোবেন বলে অপেক্ষা করছিলেন।হঠাৎ কয়েকজন সাধারণ পোষাকে লাঠি হাতে পুলিশ ফেনসিং টপকে গ্যালারীতে ঢুকে মহিলা, পুরুষ নির্বিশেষে মারতে শুরু করে। এই সময় হঠাৎই এরকম ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে পড়ে সমর্থকরা। দু একজন পালিয়ে বাঁচলেও সৌমজিৎ বসাক ও রজত সাহাকে(বেলেঘাটা) জনা পাঁচেক পুলিশ কর্মী ঘিড়ে ফেলে মারতে থাকে। তাদের বাঁচাতে গিয়ে ২ জন মহিলাও আহত হয়। এই ঘটনায় সৌমজিৎ বলে এরকম ব্যবহারে আগামীদিনে গ্যালারিতে লোক হবেনা। আজও ইষ্টবেঙ্গল কালিঘাটের মধ্যে খেলা দেখতে যাওয়ার কথা সৌমজিৎ। সৌমজিৎ এর মা বাবলি বসাক বলেন এই ঘটনা শুনে দুশ্চিন্তা বাড়ছে। পুলিশ পর্যাপ্ত কারন ছাড়া এরকম ঘটনা ঘটলে সাধারনের নিরপত্তা কোথায়।