কেডিএস, আমডাঙা :- আমডাঙা থানার গাঁদামারা হাটের কুন্দপাড়া এলাকায় এক যুবককে ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল। মৃতের দাদা নাসিবুর আমডাঙা থানার সিভিক পুলিশের কাজ করেন। প্রতিদিন রাতে ডিউটি শেষ হলে ভাই কে ফোন করলে বাইকে করে নিয়ে যান । গত বুধবার ও দাদা নাসিবুর রহমান আমডাঙা থানায় ডিউটি শেষ করে বাড়ি ফেরার জন্য ভাই নাজিবুর রহমান কে ফোন করে ডাকে ভাই বাইক নিয়ে কুন্ডপাড়ার বাড়ি থেকে বের হয় দাদা দীর্ঘক্ষণ গাঁদামারা হাটে অপেক্ষা করার পর ভাই নাজিবুর কে বারবার ফোন করে ফোনে না পেয়ে কুন্দপাড়া বাড়ির দিকে পায়ে হেঁটে রওনা দেন কিছুটা আসার পর ফাঁকা জায়গা ভাইয়ের বাইক ভাঙাচোরা অবস্থায় পরে রয়েছে একটু দূরেই ভাইয়ের গলা সহ শরীরের একাধিক স্থানে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানো অবস্থা পরে রয়েছে দেখতে পায়। খবর পেয়ে এলাকার মানুষ তারাই উদ্ধার করে আমডাঙা হাসপাতালে নিয়ে আসলে মৃত বলে ঘোষণা করে । এই ঘটনায় কে বা কারা যুক্ত তার তদন্তের দাবি নাজিবুর রহমানের পরিবারের। পুলিশের দাবি ময়নাতদন্তের রিপোর্টের পর জানা যাবে কি ভাবে তার মৃত্যু হয়েছে