অলোক আচার্য, নব বারাকপুরঃ- এখন করোনা অনেক কম। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব উপনির্বাচন করে দিলে পারে। নানা অজুহাত দেখাচ্ছে নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন দেরি করে দিতে চাইছে কমিশন। এটা অন্যায়। এর বিরুদ্ধে আমাদের প্রতিবাদ। নানা বদমাইশি করছে ইলেকশন কমিশন। এর শেষ নেই। আইনশৃঙ্খলা রাজ্যের হাতে।বিরোধীদের কোন অধিকার নেই। শুভেন্দু নারদা সারদা কেসে অভিযুক্ত। সলিসিটারের আইনজীবী র সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে। কথা হচ্ছে। গিয়ে দেখা করছে। সেন্ট্রালের টিম পাঠাচ্ছে। মানবাধিকার কমিশন দল আসছে। দিল্লির টিম এসে কি করবে।তারা এসে কিছু করতে পারবে না। একটু খোচাচ্ছে, বিরক্ত করছে। কাগজের হেডলাইন হচ্ছে। রাস্তায় তৃণমূল ছাড়া কেউ নেই। খড়দহ বিধানসভায় উপনির্বাচন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিপুল ভোটে জিতবে। রাস্তায় একমাত্র তৃণমূলই রয়েছে। ভোটের সময় সবাই তৃণমূল। খড়দহ শোভন যোগ্যতম। শোভন কে নিয়ে কোন গ্রুপিজম নেই। গ্রুপিজম নিজেদের মধ্যে থাকতে পারে। গ্রুপ ট্রুপ ছোট খাটো থাকবে। এই করোনা অতিমারি সময় আমরা সবাই মানুষের পাশে রয়েছি। সবাই আমরা কিছু করছি। নব বারাকপুর সাজিরহাট জে ডি প্যলেসের সামনে রবিবার দুপুরে সুফলা সবজি বন্টন অনুষ্ঠানে এসে কথাগুলি বলেন সাংসদ সৌগত রায়।

শোভন চট্টোপাধ্যায় জিতে এলাকায় আরো উন্নয়ন হবে বলেন সাংসদ। দান নয়, ত্রাণ নয়, ষোলো আনা পাশে থাকার অঙ্গীকার নিয়ে ব্যারাকপুর ২ পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য সেখ আলমগীর আলি ও বিলকান্দা ১ তৃণমূল সংখ্যালঘু সেলের সভাপতি সেখ সারুপ এর ব্যবস্থাপনায় রবিবার সকালে স্থানীয় শহরপুর জে ডি প্যলেসের সামনে এক বিরাট সুফল সবজি বন্টন আয়োজন করা হয় এদিন। বিলকান্দা ১ গ্রাম পঞ্চায়েতের বোদাই শহরপুর বোর্ডঘর সাজিরহাট অপূর্বনগর সহ স্থানীয় বহু অসহায় দিনমজুর রিক্সা ও ভ্যান চালক গরীব মানুষের হাতে প্রায় পাঁচ শতাধিক মানুষকে বিনামূল্যে সবজি বিতরন করা হয় ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের কৃষি মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়, খাদ্য মন্ত্রী রথীন ঘোষ, খড়দহ বিধানসভার প্রয়াত বিধায়ক জননেতা কাজল সিনহার সহধর্মিনী নন্দিতা সিনহা, খড়্দহ পুরসভার চেয়ারপার্সন নীলু সরকার, রাজ্যে তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক সায়নদেব চট্টোপাধ্যায়, খড়দহ ব্লক তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি প্রবীর রাজবংশী, জেলা তৃণমূল সংখ্যালঘু সেলের সম্পাদিকা সাবানা পারভিন, রাজ্যের সংখ্যালঘু সেলের সহ সভাপতি মহম্মদ খালেক, কামারহাটি সেলের সভাপতি বাবুল আনসারি, সমাজসেবী ইয়াসার হায়দার, সমাজসেবী কোপিল তালুকদার, জেলা পরিষদের সহকারী সভাধিপতি কৃষ্ণ গোপাল বন্দ্যোপাধ্যায়, পাতুলিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের উপ প্রধান কিশোর বৈশ্য, বন্দীপুর পঞ্চায়েত সদস্য তাপস ঘোষ, সুকুমার সিং, সেখ দীন মহম্মদ, শচীন হালদার সহ বিলকান্দা গ্রাম পঞ্চায়েতের সমিতির সদস্যরা।

কৃষি মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় বলেন, কর্মীরা এলাকায় মানুষের পাশে থাকবেন, সাথে থাকবেন, বিপদে থাকবেন, আনন্দে থাকবেন। এটা দলের শিক্ষা। জীবনে কেনাবেচা নয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তিনশ বার জিতবেন। মানুষের জন্য কাজ করুন। মানুষের পাশে থাকুন। খুব ভালো লাগছে খড়দহ ব্লক কর্মীরা ঐক্যবদ্ধ ভাবে এলাকায় এই করোনা অতিমারি সংকটে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের দুদিনের সবজি তুলে দিচ্ছে।এর থেকে মহৎ কাজ কিছু হতে পারে না। অনেক ভাল কাজ। কর্মীরা কাউকে হাসপাতালে ভর্তি করছেন আবার রক্তদান শিবির করছেন। স্কুল কলেজে ছেলেমেয়েদের ভর্তি করছেন টিকাকরণ এর ব্যবস্থা করছেন। খড়্দহ এলাকার মানুষ যে ভাবে এগিয়ে এসে মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে আমি অভিভূত আপ্লুত।