অলোক আচার্য, বারাসতঃ- মহিলাদের সরকারী আইনী পরিষেবা বেশি করে পৌঁছে দিতে হবে। সচেতনতার অভাবে আইনী সঠিক পরিষেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন মহিলারা। কি আদালতে কিংবা আইনজীবীর দ্বারস্থ হয়েও সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। মামলার কেস নিয়ে দীর্ঘদিন ঘুরছেন। সঠিক বিচার পাচ্ছেন না অসহায় মহিলারা। শুক্রবার সকালে বারাসত দক্ষিণ পাড়া হরিনাথ সেন রোডে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন অর্ক দীপ সোপানের উদ্যোগে বিনামূল্যে আইনী সচেতনতা শিবির ও পরামর্শ কেন্দ্রে এসে কথা গুলি বলেন আলিপুরদুয়ার জলপাইগুড়ি জর্জ কোর্টের আইনজীবী সমীর মজুমদার।

আইনজীবী সমীর মজুমদার এদিন আইনী পরামর্শ কেন্দ্রে এসে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার লাগোয়া প্রায় ১৪ টি মামলা সুবিচারে পরামর্শ দেন অভিযোগকারী উপভোক্তাদের। বিশেষ করে মহিলাদের বিয়ের পর বধূ নির্যাতন, ভরন পোষন সহ জমি অধিগ্রহণ বেশ কিছু আইনী জটিলতা সমস্যা পরামর্শ দেন মামলা কারীদের। ২০১৩ সালে এক বিবাহিত মহিলার ভরন পোষণ মামলা শুনানি দূর অন্ত কোন সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত। সঠিক বিচার পাচ্ছেন না। দীর্ঘ আট বছর ঘুরছেন। দত্ত পুকুর নিবাসী ৬০ উর্ধ্বে প্রবীন স্বামী স্ত্রী নিজের বসতবাড়ি ও দোকান বিক্রি করে দেওয়ার চক্রান্তের স্বীকার দালাল দের খপ্পরে।

এরকমই বিভিন্ন অসহায় বৃদ্ধ বৃদ্ধারা আইনী অঙ্গতায় সঠিক পরিষেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।বারাসত অর্ক দীপের সোপান স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের এহেন আইনী পরামর্শ শিবির বেশি করে করলে বহু মানুষ উপকৃত হবেন সঠিক বিচার পাবেন মনে করেন আইনজীবী সমীর মজুমদার। উপস্থিত ছিলেন অর্ক দীপ সোপানের চেয়ারপার্সন দীপ্তি রায়, সম্পাদক সৌমদীপ রায়, কোষাধ্যক্ষ রীতা বিশ্বাস, উপদেষ্টা জয়দেব বিশ্বাস, জেলা আদালতের পার্শ্ব আইনী সহায়ক রত্না চক্রবর্তী প্রমুখ।