অলোক আচার্য, কলকাতাঃ- রবিবার সকালে বারাসত অর্ক দীপের সাহিত্য সোপানের এষণা পত্রিকার চতুর্থ বর্ষের (বইমেলা সংখ্যা) মোড়ক উন্মোচন হল কলকাতা সূর্য সেন রোডে কৃষ্ণ পদ ঘোষ মেমোরিয়াল হল ঘরে। উপস্থিত ছিলেন পত্রিকার সভাপতি কবি কমল দে সিকদার, সাহিত্যিক আরণ্যক বসু, পৃথ্বীরাজ সেন, বিমল কৃষ্ণ বিশ্বাস, বিমল চন্দ্র গড়াই, তাপস সাহা, ডাঃ সুকান্ত কর্মকার, অভিজিৎ গুপ্ত, মনোরঞ্জন আচার্য সহ বিশিষ্ট গুণীজনেরা। এদিন বেশ কিছু কবি লেখকদের গুণীজন সাহিত্য সম্মাননা প্রদান করা হয়।

উপস্থিত কবি লেখক রা স্বরচিত কবিতা গান পরিবেশন করেন। সাহিত্যিক পৃথ্বীরাজ সেন দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে বলেন, কঠিন বাস্তবে উপর দাঁড়িয়ে শুধু অভিমান বা আবেগে নয় বাংলা ভাষা মর্যাদাকে জনমুখি না করতে পারলে বাংলা ভাষা আন্দোলন কুয়োয় চলে যাবে। সুনাম অর্জন করে ধরে রেখেছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন গুণীজনেরা। ভাষাকে ভালোবেসে পরের প্রজন্ম কে উজ্জীবিত করুন। এ প্রজন্ম সাহিত্য মুখি না করতে পারলে ভাষা থাকবে না। লিটল ম্যাগাজিন বাংলা সাহিত্যের আতুরঘর। লিটল ম্যাগাজিন না থাকলে বাংলা সাহিত্য বাঁচবে না। বাঙালির জাতি সত্বা কবিরা মাথা উচু করে বাঁচতে শিখুন। দলদাস মুক্ত করবেন না। আত্মসমর্পণ করবেন না। চাই জোড়ালো দাবি লিটল ম্যাগাজিন বেশি করে বিজ্ঞাপন পাক।

মঙ্গল দ্বীপ প্রজ্বলন করে অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন সাহিত্যিক আরণ্যক বসু, পৃথ্বীরাজ সেন, কমল দে সিকদার, পত্রিকা সম্পাদিকা দীপ্তি রায় সহ বিশিষ্ট গুণীজনেরা। খালি গলায় উদ্বোধনী সংগীত পরিবেশন করেন দীপ্তি রায়। এরপর অতিথি বরণ এর পর সমাজের বিশিষ্ট গুণীজনদের সাহিত্য সম্মাননা স্মারক মানপত্র প্রদান করা হয়। চলে সাহিত্য আলোচনা কবিতা পাঠ গান। অনুষ্ঠান সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন বাচিক শিল্পী পরিতোষ হাওলাদার ।

কবি সাহিত্যিক আরণ্যক বসু তিনটি স্বরচিত কবিতা পাঠ করেন। বলেন, কবি লেখকরা লেখার মধ্যে থাকুন। তিন টাকার পেন দশ টাকার প্যাডে প্রত্যেক দিনের সামাজিক নানা ঘটনা কাগজের মধ্যে ফুটে উঠুক। কলমে বা রিপোর্টে দরজায় খুলে দাও। আনিস হত্যাকাণ্ড নিয়ে নিজের লেখা এবং নারী দিবসে নারীদের সম্মান জানিয়ে জোরালো কবিতা কন্ঠে এক অনন্য সৃষ্টিসীল সাহিত্য সাধনার ছাপ ফুটে ওঠে এদিন। দুর দুরান্ত থেকে কবি লেখকদের চাদেঁর হাট বসে এদিন।