সংবাদদাতা, বসিরহাটঃ- অবসরপ্রাপ্ত সৈনিকদের উদ্যোগে ইয়াসের প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় স্বাস্থ্য শিবির ও পড়ুয়াদের বই খাতা পেন দিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছেন অবসরপ্রাপ্ত সৈনিকরা। হিঙ্গলগঞ্জ, হাসনাবাদ বিধানসভায় দীর্ঘদিন ধরে নদীর জল মাঠ পুকুরে খানাখন্দ ভরে যায়। ওই এলাকায় মাছ ছোট জীব মরে জল দূষিত হয়। এর ফলে এলাকার লোক ওই সমস্ত জলে কাজের উদ্দেশ্যে ব্যবহার করলে তাদের পায়ে হাতে নানান রকম জল বাহিত চর্ম রোগ দেখা দেয় বলে গ্রামবাসীদের বক্তব্য। এছাড়াও পেটের রোগ বেশ কিছু এলাকায় দেখা গিয়েছে।

এই দিন স্বাস্থ্য শিবিরে আশা বেশিরভাগ মানুষের চর্ম ও পেটের রোগ নিয়ে দেখা যায় এই শিবিরে ডাক্তারবাবুদের কাছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের বক্তব্য দীর্ঘদিন ধরে জল জমে থাকায় পুকুরের জলে মাছ ও গাছ এই সমস্ত পচে নষ্ট হয়ে জল দূষিত হয়ে গেছে ওই জল হাতে পায়ে লেগে নানান রকম জল বাহিত রোগ দেখা দিয়েছে। হাসনাবাদে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় এই স্বাস্থ্য শিবিরের আয়োজন করা হয়।

স্বাস্থ্য শিবিরের চিকিৎসা করতে আসা লক্ষ্মী রানী কয়াল জানান, সব সময় বসিরহাট, টাকি হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা করা সম্ভব হয়না। অন্যদিকে লকডাউন চলছে ওষুধ কেনার মত টাকা পয়সা নেই। তাই আজ আমাদের গ্রামে অবসরপ্রাপ্ত সৈনিকদের উদ্যোগে ডাক্তারবাবুরা এসে বিনা মূল্যে ওষুধ ও চিকিৎসা করছেন এইরকম উদ্যোগকে গ্রামবাসীরা ভীষণ খুশি।

এই বিষয়ে অবসরপ্রাপ্ত সৈনিক বিকাশ গায়েন ও মধুসূদন গায়েন বলেন, আমরা যে সমস্ত এলাকায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সেখানে গিয়েই আমাদের নিজেদের উদ্যোগে স্বাস্থ্য শিবির ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া পড়ুয়াদের হাতে বই খাতা পেন তুলে দিই। প্রায় ৮০০ জনের মত গ্রামবাসীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা দিয়েছি। এবং ১০০ জন পড়ুয়ার হাতে পড়ার সরঞ্জাম তুলে দিতে পারলাম।

আজ আমাদের সাথে বেশকিছু শিক্ষক ও পড়ুয়ারা এগিয়ে এসেছে তাদেরকে নিয়ে সুন্দরভাবে স্বাস্থ্য শিবির থেকে শুরু করে প্রত্যন্ত গ্রাম এলাকায় সচেতন মূলক প্রচার করতে পারলাম। আগামী দিন আমার এই সমস্ত ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে গ্রামগঞ্জে কুসংস্কারের বিরুদ্ধে সচেতন মূলক প্রচার করব।