সনাতন গরাই, দুর্গাপুর :- কি গ্রীষ্ম -কি বর্ষা রাত দিন এক করে নির্দিষ্ট সময়ের থেকেও কাজ করতে হয় অনেক বেশি। কখনো ট্রাফিকের ভূমিকায় আবার কখনো সিকিউরিটি গার্ড। মেলা, খেলা, ঝুরঝামেলা সমস্ত কিছুতেই সিভিক ভোলেন্টিযার। অনুষ্ঠানে রাত দিন এক করে ডিউটি পালন করে। দুর্গাপুরের সিভিকরা জানাই, আমাদের প্রধান কাজ ট্রাফিক।অতিরিক্ত গরমে বৃষ্টিতে ভিজে রোডে আমাদের ট্রাফিকের কাজ করতে হয়। দুর্গাপূজায় চারদিন চলে ডিউটি। এর জন্য নেই স্পেশাল বেতন, নেই পি এফ। যেটুকু বেতন পাওনা সেটাও কখনো ২০ দিন আবার কখনো এক মাস পর দেরি হয়।এরা জানান আমাদের ও পরিবার আছে, ওই টাকায় চলে না সংসার। আবার যখন খুশি ডাক পরলে যেতে হবে ছুটে। কোনো অনুষ্ঠানে নেই কোনো ছুটি। পূজা কাটাতে হয় কখনো সিকিউরিটি গার্ড আবার কখনো রোডে দাঁড়িয়ে।দুর্গাপুরের সিভিকদের অভিযোগ সবার বেতন বাড়ানো হয় কিন্তু এতো খাটিয়েও বাড়ানো হয় না আমাদের বেতন।